এলার্জি ঔষধ এর নাম বাংলাদেশ ২০২৪

Telegram Group Join Now

হ্যালো, প্রিয় দর্শক। কেমন আছেন সবাই। আশাকরি, সকলেই ভালো আছেন। আমরা আজকে আপনাদের সাথে শেয়ার করব। এলার্জি ঔষধ এর নাম কি ও দাম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

এলার্জি হল একটি রোগ। আমাদের চার পাশের মানুষের এই রোগটি হতে দেখা যায়। এলার্জি নামক শব্দটি শুনলে, শরীর ও মন শিহরিত হয়ে ওঠে। আমরা এবার আপনাদের সাথে শেয়ার করব। এলার্জি কেন হয়? এবং কাদের বেশি এলার্জি হয়।

এলার্জি কি?

আমাদের প্রত্যেকের মানবদেহের রোগ প্রতিরোধ করার জন্য ক্ষমতা থাকে। যখন, মানব শরীর এ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ঠিক ভাবে কাজ না করে। অর্থাৎ যে সকল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা আমাদের দেহের কোন ক্ষতি করে না এবং এদের পার্শ প্রতিক্রিয়ার ফলে, মানব শরীরে এলার্জির সৃষ্টি হয়।

এলার্জি ধরন বা প্রকারভেদ

মানবদেহে এলার্জি বিভিন্ন ধরনের উপায়ে হয়ে থাকে। আপনাদের সুবিধার জন্য আমরা নিচে কয়েকটি এলার্জির বিভিন্ন ধরন গুলো উল্লেখ করা হল।

  • স্কিন বা ত্বকে এলার্জি।
  • পরাগরেনু এলার্জি।
  • খাদ্য এলার্জি।
  • পোষ্য এলার্জি।
  • কীটপতঙ্গ কামড়ানো এলার্জি।
  • ঔষধের এলার্জি।
  • ঠান্ডা জনিত এলার্জি।
  • দূষিত ধুলো বাতাস জনিত আরো নানা ধরনের এলার্জি।

আপনাদের সুবিধার জন্য এলার্জি ধরন বা প্রকারভেদ গুলো নিচে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হল।

স্কিন এলার্জি কি?

আমাদের স্কিন বা ত্বকে যে ধরনের চুলকানি বা এলার্জি হয় তাকে স্কিন বা ত্বকে এলার্জি বলে। আমাদের ত্বকে বিভিন্ন কারণে, এই এলার্জি হয়ে থাকে। কোন ক্ষতিকর বা বিষাক্ত গাছ-পালার স্পর্শে গেলে কিংবা পশুরপাখির স্পর্শে কিংবা সোনাদানা কিংবা বাজারি গহনা পরিধান করলে ত্বকে সাধরণত এলার্জি দেখা দিতে পারে।

পরাগরেনু এলার্জি কি?

আমাদের মানবদেহে পরাগরেনু জনিত এলার্জি হয়ে থাকে। এই ধরনের এলার্জি সাধারনত ফুল, ফল, ঘাস এবং বিভিন্ন উদ্ভিদের প্রজনন কোষ হতে সৃষ্টি হয়।

খাদ্য এলার্জি কি?

খাদ্য এলার্জি সাধারণত বিভিন্ন ধরনের খাদ্য খাওয়ার জন্য হতে পারে। যেমন: ডিম, মাংস, মাছ, দুধ, বাদাম, সয়াবিন, গম, পনির, বেগুন ইত্যাদি খাদ্য-দ্রব খাওয়ার ফলে হয়ে থাকে।

পোষ্য এলার্জি কি?

পোষ্য বলতে সাধারণত পশুপাখিকে বোঝায়। এই এলার্জি সাধারণত পশুর পশম বা ত্বক পোড়ার প্রতিক্রিয়ার জন্য হয়ে থাকে। যেমন: কুকুর, বিড়াল, খরগোশ, ছাগল ও ভেড়া ইত্যাদি পশুর স্পর্শে পোষ্য এলার্জি হয়ে থাকে।

কীটপতঙ্গ কামড়ানো এলার্জি?

মানবদেহে কীটপতঙ্গ কামড়ানোর ফলে এলার্জি হতে পারে। এটি সাধারণত কীটপতঙ্গ কামড়ানোর পার্শ-প্রতিক্রিয়ার জন্য এ ধরনের এলার্জি হয়ে থাকে। যেমন: মৌমাছি, মশা, মাকড়শা ও বিছি ইত্যাদি কামড়ানোর ফলে এ ধরণের এল্যার্জি দেখা দেয়।

ঔষধের এলার্জি কি?

ঔষধ এর এলার্জির সাথে আমরা অনেক আগে থেকে পরিচিত। এটি সাধারণত বিভিন্ন ঔষধের পার্শ প্রতিক্রিয়ার একটি অংশ। আমরা সাধারণত রোগ বালাই প্রতিরোধ করার জন্য ঔষধ খায়। কিন্তু! সঠিক ঔষধ বা পরিমাণ মত না খেলে আমাদের শরীরে এলার্জি দেখা দিতে পারে।

ঠান্ডা জনিত এলার্জি কি?

অনেক শরীরে অতিরিক্ত ঠান্ডা বাতাস বা শীত কালে ঠান্ডা জনিত এলার্জি হয়ে থাকে। তবে, আপনারা অনেক সময় ফ্রিজ এর ঠান্ডা পানি বা খাবার খেলে এ ধরনের এলার্জি দেখা দিতে পারে।

ধুলো জনিত এলার্জি কি?

ধুলো মাইট এলার্জি সাধারণত দূষিত ধুলাবালি থেকে হয়। এমনটা নয়, এটি বিছানা, বালিশ, পুরাতন কাপড়, জামা এবং আসবাবপত্রের জন্য ও হয়ে থাকে। তাই, আমাদের সবার উচিত সবসময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা।

এলার্জি ঔষধ এর নাম

এলার্জি ঔষধের নাম গুলো নিচে শেয়ার করা হল। আপনারা অবশ্যই যে কোন রোগের জন্য ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন। অনলাইনে দেওয়া কোন ঔষধ সেবন করার আগে। প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য আমরা কয়েকটি এলার্জি ঔষধ এর নাম নিচে শেয়ার করছি।

  • Rupatadine 10 mg
  • Loratadine 10mg
  • Chlorpheniramine 4mg
  • Fexo 120 mg
  • Loratadine 10mg

বর্তমানে বাজারে এলার্জির জন্য Fexo/Fenadine ও Alatrol বেশি ব্যবহার হয়।

এলার্জির ঔষধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কি?

এলার্জি ঔষধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলি সাধারণত সাময়িক বা অল্প কিছু সময়ের জন্য হয়ে থাকে। তবে, কিছু ক্ষেত্রে গুরুতর পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। তবে, আপনারা অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন। তাহলে, আপনারা এসকল বিষয় এড়িয়ে চলতে পারবেন। অ্যান্টিহিস্টামাইনগুলির সাধারণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলির কিছু লক্ষন নিচে দেওয়া হল।

  • মাথাব্যথা
  • ক্লান্তি
  • শুষ্ক মুখ
  • ঘুম ঘুম ভাব
  • বমি বমি ভাব ইত্যাদি সমস্যা হতে পারে।
আমাদের শেষকথাঃ

আশাকরি, আপনারা খুবই সহজে এলার্জি ঔষধ এর নাম কি ও  এলার্জির সকল বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। আজকের আর্টিকেলটি ভালো লাগলে। আপনাদের প্রিয় বন্ধু-বান্দবের সাথে শেয়ার করুন। আর! কোন কিছু বুঝতে অসুবিধে হলে, আমাদের টেলিগ্রাম গ্রুপ অথবা আমাদের নিচের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ

4.2/5 - (4 votes)

Leave a Comment